ছেলেদের মুখেৱ ব্রণ দূর করার উপায়

আপনি কি জানেন ছেলেদের মুখের ব্রণ দূর করার উপায় গুলো কি কি? যদি জেনে না থাকেন তাহলে আমি আপনাকে বলব আজকে আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়ুন। মনোযোগ সহকারে আজকের আর্টিকেলটি পড়লে আশা করি এরপর আপনার ব্রণ নিয়ে আর কোন টেনশন থাকবে না। ব্রণ দূর করার উপায় নিয়ে আজকে আমি আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি। ব্রণ মূলত এক ধরনের স্কিন ডিজিজ যা আমাদের মুখে হয়ে থাকে। ব্রণ হলে আমাদের চেহারার অবস্থা অনেক বাজে দেখায়। তাই ব্রণ নিয়ে অনেকেই দুশ্চিন্তায় ভোগে। তবে চিন্তার কোন কারণ নেই সমস্যা যখন আছে তখন এর সমাধানও নিশ্চয়ই রয়েছে। 

ব্রণ হওয়ার বেশ কিছু কারণ রয়েছে। তবে আমাদের আশেপাশের ধুলোবালি এবং পলিউশন এর জন্য সবথেকে বেশি দায়ী। কারণ আমাদের শরীরের রয়েছে অনেক লোম কুপ। এই লোমকূপ থেকে এক বিশেষ ধরনের তেল বের হয় যা মূলত আমাদের স্কিনের নেরিসমেন্টের জন্য দরকার হয়। কিন্তু বাহিরের প্রচন্ড দুলো বালি এবং পলিউশন মিলে আমাদের এই লোমকূপগুলো আটকে দেয় যার ফলে আমাদের স্কিনের গুলো বাইরে বের হতে পারে না। এবং সেগুলো ভিতরে জমা হয়ে ব্রণ আকারে ফুলে ওঠে। মুখের ব্রণ ও কালো দাগ দূর করার সহজ উপায় গুলো আজকের এই আর্টিকেলটি থেকে জেনে নিন।

ছেলেদের-মুখের-ব্রণের-দাগ-দূর-করার-উপায়
ছেলেদের-মুখের-ব্রণের-দাগ-দূর-করার-উপায়

আরও পড়ুনঃ

ব্রণ মূলত তেমন জটিল কোনো রোগ নয় সাধারণ কিছু ঘরোয়া টিপস ফলো করলেই আমরা চাইলে এটি থেকে মুক্তি পেতে পারি। কিন্তু আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই রয়েছে যারা না বুঝে মুখে দুই একটা ব্রণ হলে নখেৱ সাহায্যে ফাটিয়ে দেয় ফলে বাতাসে ভেসে বেড়ানো বিভিন্ন রকম ব্যাকটেরিয়া এবং ভাইরাস সে ক্ষতস্থানে প্রবেশ করে এবং ব্রণের বংশবৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। পরবর্তীতে দেখা যায় একটা ব্রণ ভুলিয়ে দেওয়ার কারণে সেখানে আরো দশ-বারোটা ব্রণেৱ তৈরি হয়। এছাড়াও ব্রণ হওয়ার জন্য আরেকটি বিষয় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে সেটি হচ্ছে হরমোনের ডিসঅ্যাপায়ার।এর কারণে আমাদের মুখে অনেক ব্রণ এর দেখা দিতে পারে।

চলুন তাহলে কথা না বাড়িয়ে ছেলেদের মুখের ব্রণ দূর করার ঘরোয়া উপায় সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক। আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনারা ১ দিনে মুখের ব্রণ দূর করার উপায় সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে পারবেন।

ছেলেদের মুখেৱ ব্রণ দূর করার উপায়

আগে মনে করা হতো শুধুমাত্র ত্বকের সমস্যা মেয়েদেরই হয় কিন্তু এই ধারণাটা সম্পূর্ণ ভুল। মেয়েদের মত ছেলেদের ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয় তার মধ্যে অন্যতম একটি হলো ব্রণ। মূলত উঠতি বয়সী যুবক যুবতীদের ত্বকে ব্রণেৱ সমস্যা সবচাইতে বেশি দেখা যায়। চিন্তার কোন কারণ নেই মুখের ব্রণ দূর করার উপায় রয়েছে অনেক। কিন্তু সমস্যা হল ব্রণ হলে অনেক সময় মুখে ব্রনের দাগ রয়ে যায়। মুখের দাগ দূর করার উপায় না জানার ফলে আমাদের মধ্যে অনেকেই চিন্তায় পড়ে যায়। মূলত আমরা চাইলে ব্রণের দাগ দূর করার উপায় ফলো করার মাধ্যমে দাগ দূর করতে পারি। তবে এটা সত্যি যে এক রাতে ব্রণ দূর করাৱ উপায় বলতে কি কিছু নেই। এক রাতেই আপনি চাইলে সবকিছু ঠিক করতে পারবেন না। এজন্য আপনাকে অবশ্যই ধৈর্য ধরতে হবে এবং নিয়মিত খাদ্যাভ্যাস ঠিক রাখতে হবে। ছেলেদের মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় রয়েছে অনেক আপনার মুখে যদি এমন কোন দাগ থেকে থাকে তাহলে আপনিও চাইলে এই উপায় গুলো ফলো করতে পারেন। চলুন তাহলে নিচে বিস্তারিত আলোচনা করে জেনে নেওয়া যাক ছেলেদের মুখের ব্রণ দূর করার ঘরোয়া উপায় গুলো কি কি।

পুদিনা পাতার ব্যবহার:

ব্রণ দূর করতে পুদিনা পাতা অনেক উপকারে আসে। অতিরিক্ত গরমের কারণে যাদের মুখে ফুসকুড়ি বা ব্রণ ওঠে তারা চাইলে পুদিনা পাতার মাধ্যমে এটি থেকে পরিত্রান পেতে পারে। এজন্য আপনাকে যা করতে হবে তা হল পুদিনা পাতা ভালোভাবে বেটে তা আপনার মুখে 20 মিনিট লাগিয়ে রাখুন। তারপর ঠান্ডা পানি দিয়ে ভালোভাবে মুখ পরিষ্কার করে নিন।

পেঁপে ও চালের ব্যবহার:

ত্বকের ময়লা দূর করার জন্য চাল এবং পেঁপের কোন জুড়ি নেই। ব্রণ মূলত ত্বকে ময়লা জমার কারণে হয়ে থাকে। তাই ব্রণের হাত থেকে নিস্তার পেতে সবার আগে আপনাকে ত্বক পরিষ্কার রাখতে হবে। পেঁপে চালের গুঁড়ো এবং লেবুর রস একসাথে মাখিয়ে তা আপনার মুখে 20 মিনিটের জন্য রেখে দিন। তারপর ঠান্ডা পানি এবং ছেলেদের মুখের কালো দাগ দূর করার ফেসওয়াস দিয়ে মুখ ভালো ভাবে ধুয়ে নিন। এতে করে আপনার ত্বকে জমে থাকা ময়লা অনেকটা পরিষ্কার হয়ে যাবে। ফলে ব্রণ ওঠার সম্ভাবনা কমে আসবে।

পানি এবং মৌসুমী ফল খাওয়া:

আপনার শরীরে যদি পানিশূন্যতা থাকে তাহলে এটি আপনার ত্বকের তৈলাক্ততাৱ পরিমাণ বাড়িয়ে দিবে যার ফলে আপনার  ব্রণ উঠার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে। তাই আপনাকে অবশ্যই যথেষ্ট পরিমাণে পানি পান করতে হবে। প্রতিদিন কমপক্ষে 8 থেকে 10 গ্লাস পানি পান করার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে। পানির হাত থেকে বাঁচতে মৌসুমী ফল খাওয়া অনেক উপকারে আসে। প্রতিদিন রাতের খাবার খাওয়ার পরে কিছু পরিমাণ মৌসুমী ফল খাওয়ার চেষ্টা করুন।

ব্রণ থেকে বাঁচার উপায়:

  • যাদের মুখে তৈল বেশি তাদের মুখে সাধারণত ব্রণ বেশি হয়ে থাকে। তাই ব্রণের হাত থেকে বাঁচতে মুখ সবসময় পরিষ্কার রাখুন এবং বাহির থেকে ফিরেই মুখে ঠাণ্ডা পানির ঝাপটা দিন।
  • পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকার জন্য প্রতিদিন কমপক্ষে দু’বার গোসল করুন
  • ব্রণের উৎপত্তি কমাতে বেশি বেশি মুখ ধোয়ার অভ্যাস করুন প্রতিদিন অন্তত তিন থেকে চারবার মুখ ধুয়ে নিন।
  • সাবানের পরিবর্তে ফেসওয়াশ ব্যবহার করার অভ্যাস তৈরি করুন।
  •  ব্রণের দাগ দূর করে ত্বক উজ্জ্বল করতে নিয়মিত ত্বকে ময়দা দুধ ও মধুর প্যাচ লাগানো
  • মুখে ব্রনের দাগ যদি স্থায়ী করতে না চান তাহলে লোক দিয়ে ব্রণ খোঁটাখুঁটি করার অভ্যাস পরিত্যাগ করুন।
  •  এছাড়াও ছেলেদের ব্রণের দাগ দূর করার ক্রিম বাজারে পাওয়া যায় আপনি চাইলে ভালো মানের একটি ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন।

ব্রণ থেকে বাঁচতে যা খাবেন:

আমাদের প্রতিদিনের খাদ্য বাস আমাদের ত্বকে অনেক প্রভাব ফেলে। তৈলাক্ত ভাজাপোড়া এসব খাবার খাওয়ার ফলে আমাদের ব্রণের সমস্যা আরও বেড়ে যায়। তাই ব্রণের হাত থেকে বাঁচতে প্রতিদিন নিয়মিত শাকসবজি খান। প্রতিদিন নিয়মিত সবুজ শাকসবজি আর টাটকা ফলমূল খেলে আপনি ব্রণের হাত থেকে অনেকটা রক্ষা পাবেন। আবার অনেক ডাক্তারদের মতে কোষ্ঠকাঠিন্যের কারণে ত্বকে ব্রণের দেখা দেয়। তাই চেষ্টা করুন সবসময় পেট পরিষ্কার রাখার। এর জন্য সবুজ শাকসবজি এবং টাটকা ফলমূল আপনার অনেক উপকারে আসবে। আর অবশ্যই প্রচুর পানি খাওয়ার অভ্যাস তৈরি করুন। যত বেশি আপনি পানি খাবেন ততই আপনি বিভিন্ন রোগবালাই থেকে মুক্ত থাকবেন। আপনার ত্বকে যদি ব্রণের কালো দাগ হয়ে থাকে তাহলে ছেলেদের মুখের কালো দাগ দূর করার ফেসওয়াস ব্যবহার করার মাধ্যমে উপকার পেতে পারেন।

পরিশেষে,

আশা করছি ছেলেদের মুখের ব্রণ দূর করার উপায় গুলো আপনারা ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন। অনেক প্রতারক কোম্পানি রয়েছে যারা তাদের ক্রিম বিক্রির জন্য এক দিনে ব্রণ দূর করার উপায় ইত্যাদি বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দিয়ে মানুষকে ঠকানোর চেষ্টা করে। এদের থেকে সাবধান কারণ এসব ক্রিম ব্যবহার করার ফলে আপনার ব্রণ দূর হওয়ার বদলে আরো বেড়ে যেতে পারে। রাতারাতি ব্রণ দূর করার এমন কোন উপায় নেই ব্রণ থেকে বাচতে হলে আপনাকে অবশ্যই কিছু নিয়ম মানতে হবে। আজকের এই আর্টিকেলটি আশা করছি আপনাদের খুব ভালো লেগেছে। আজকে আমি এখানেই বিদায় নিচ্ছি। আবারো খুব শীঘ্রই নতুন কোন আর্টিকেল নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হবো। সেই পর্যন্ত ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top