বিকাশ পিন লক হলে করণীয় কি? বিকাশ পিন রিসেট করার উপায়।

আপনার বিকাশ পিন লক হয়ে গিয়েছে? আপনি কি বিকাশ পিন ভুলে গিয়েছেন? চিন্তার কোন কারন নেই আপনি নিজেই বিকাশ পিন ব্লক ঠিক করে ফেলতে পারবেন। আজকে আমি আপনাদের জানাবো বিকাশের পিন লক হয়ে গেলে কিভাবে আপনি আপনার বিকাশ পিন রিসেট করে নিতে পারবেন, এর জন্য আপনাকে কোন প্রকার হেল্পলাইনে কল করার প্রয়োজন হবে না। কিভাবে বিকাশের পিন লক খুলবেন বা পিন রিসেট করবেন তা জানতে সম্পূর্ন পোস্ট টি মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

 বিকাশ-পিন-রিসেট

 

বিকাশ পিন লক হওয়ার কারন

একজন বিকাশ গ্রাহকই তার বিকাশ পিন সম্পর্কে ভাল জানেন। কেননা তিনি নিজেই নিজের পছন্দমত বিকাশ পিন কোড সেট করে থাকেন। আপনা-আপনি কখনও বিকাশ পিন লক হয়ে যায় না।পর পর তিনবার ভুল পিন প্রবেশ করালে বিকাশ একাউন্ট-এর পিন লক হয়ে যায়। অনেক সময় অনেক গ্রাহক তার বিকাশ পিন ভুলে যান এবং যদি তিনি পর পর তিনবার ভুল পিন প্রবেশ করান ফলে বিকাশ পিন  লক হয়ে যায়। কখনও অন্য কেউ যিনি আপনার বিকাশ পিন কোড জানেনা তিনিও যদি অনুমান করে আপনার বিকাশ একাউন্টে পর পর তিনবার ভুল পিন দিয়ে লগইন করার চেষ্টা করে তাহলে বিকাশ পিন ব্লক হয়ে যায়। মূল কথা পর পর তিনবার যদি ভুল পিন প্রবেশ করানো হয় তাহলে বিকাশ পিন লক হয়ে যায়।

তবে, বিকাশ পিন লক  এর সমাধানও অনেক সহজ করে দিয়েছে। এখন একজন গ্রাহক নিজেই নিজেই বিকাশ পিন আনলক করতে পারবেন অর্থাৎ বিকাশ পিন রিসেট করতে পারবেন। এর জন্য গ্রাহককে বিকাশ হেল্প লাইনে কল করতে হবে না।

বিকাশ পিন লক হলে করনীয় কি?

বিকাশ পিন লক হয়ে গেলে সর্বপ্রথমে আপনার ফোনের ইনবক্সে বিকাশ লেনদেনের মেসেজগুলি চেক করুন এবং সর্বশেষ লেনদেনের মেসেজটি খুজে বের করুন। যদি মেসেজ ডিলেট হয়ে গিয়ে থাকে, তাহলে আপনি  আপনার বিকাশ একাউন্ট থেকে সর্বশেষ কত টাকা লেনদেন করেছিলেন সেটি মনে করার চেষ্টা করুন। কেননা, বিকাশ পিন রিসেট করার সময় বিকাশ আপনার কাছে আপনার সর্বশেষ লেনদেনের তথ্য জানতে চাইবে।

বিকাশের পিন রিসেট করার পদ্ধতি

বিকাশের পিন লক হয়ে গেলে আপনি দুইভাবে, বিকাশ  ইউএসএসডি কোড -*247# বা বিকাশ অ্যাপ-এর মাধ্যমে পিন রিসেট করতে পারবেন। আমি বিকাশের পিন রিসেট করার দুইটা পদ্ধতি নিয়ে নিচে বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

*247# ডায়েল করে বিকাশ পিন রিসেট করার পদ্ধতি

বিকাশ ইউএসএসডি কোড *247# ডায়েল করে খুব সহজেই আপনি আপনার বিকাশ একাউন্টের পিন রিসেট করে নিতে পারবেন। *247# ডায়েল করে  বিকাশ পিন রিসেট করতে নিচের ধাপ গুলো অনুসরণ করুনঃ

  • *247# ডায়েল করার পর “PIN Reset select” করুন। (৯ নং অপশনে “PIN Reset” দেখতে পাবেন)
  • এখন আপনার আইডি নম্বরটি প্রবেশ করান।(ভোটার আইডি/ড্রাইভিং লাইসেন্স/পাসপোর্ট নম্বর আপনি যেটি দিয়ে একাউন্ট খুলেছিলেন সেটি দিন)।
  • আপনার জন্মতারিখ টাইপ করুন।
  • আপনার বিকাশের সর্বশেষ লেনদেনের তথ্য দিন।
  • আপনার দেওয়া সকল তথ্য সঠিক থাকলে পরবর্তীতে বিকাশ আপনার মোবাইলে মেসেজের মাধ্যমে একটি অস্থায়ী পিন পাঠাবে।
  • অস্থায়ী পিন পাওয়ার পর পুনরায় *247# ডায়েল করুন।
  • এরপর ৮ নং অপশন “My Bkash” সিলেক্ট করুন।
  • এখন ৩ং অপশন “Change Pin সিলেক্ট করুন।
  • এরপর বিকাশ থেকে যে অস্থায়ী পিন কোড পেয়েছেন সেটি দিন।
  • এখন আপনার পছন্দমত ৫টি ডিজিটের একটি নতুন পিন দিন।
  • পুনরায় ৫ ডিজিটের পিনটি দিয়ে কনফর্ম করুন।
  • আপনার বিকাশের পিন পরিবর্তন হয়ে গিয়েছে  এবং আপনি বিকাশ থেকে বিকাশ পিন পরিবর্তনের একটি কনফর্মেশন মেসেজ পাবেন।

বিকাশ অ্যাপে পিন রিসেট করার পদ্ধতি

বিকাশ পিন লক হয়ে যাওয়ার পর বা পিন ভুলে গেলে আপনাকে প্রথমে *247# ডায়েল করে ভেরিফিকেশন করতে হবে এবং ভেরিফিকেশন শেষে বিকাশ থেকে আপনি একটি অস্থায়ী পাসওয়ার্ড পাবেন সেটির প্রয়োজন হবে। বিকাশ অ্যাপ এবং বিকাশ ইউএসএসডি কোডের মাধ্যমে বিকাশ পিন রিসেট এর প্রথম ধাপ গুলো একই রকম বিস্তারিত ধাপ গুলো অনুসরণ করুনঃ

  • প্রথমে *247# ডায়েল করুন।
  •  *247# ডায়েল করার পর “PIN Reset select” করুন। (৯ নং অপশনে “PIN Reset” দেখতে পাবেন)
  • এখন আপনার আইডি নম্বরটি প্রবেশ করার।(ভোটার আইডি/ড্রাইভিং লাইসেন্স/পাসপোর্ট নম্বর আপনি যেটি দিয়ে একাউন্ট খুলেছিলেন সেটি দিন)।
  • আপনার জন্মতারিখ টাইপ করুন।
  • আপনার বিকাশের সর্বশেষ লেনদেনের তথ্য দিন।
  • আপনার দেওয়া সকল তথ্য সঠিক থাকলে পরবর্তীতে বিকাশ থেকে আপনার মোবাইলে মেসেজের মাধ্যমে একটি অস্থায়ী পিন পাঠাবে।
  • অস্থায়ী পিন পাওয়ার পার বিকাশ অ্যাপ ওপেন করুন।
  • আপনার বিকাশ অ্যাকাউন্ট নম্বরটি দিন।
  • এর পর আপনি একটি অপশন দেখতে পাবেন  “পিন ভুলে গিয়েছেন?” এখানে ক্লিক করুন।
  • এরপর পিন রিসেট বাটনে ক্লিক করুন।
  • আপনার বিকাশ একাউন্ট নম্বরটি দেখতে পাবেন। এখন পরবর্তীতে ক্লিক করুন।
  • সিম অপারেটর সিলেক্ট করুন। অর্থাৎ, আপনার বিকাশ অ্যাকাউন্ট নম্বরটি কোন সিম অপারেটরের সেটি সিলেক্ট করুন।
  • আপনি একটি অটোফিল ভেরিফিকেশন কোন পাবেন। অটোফিল এর জন্য “Allow” -তে ক্লিক করুন।
  • এখন আপনি যে অস্থায়ী পিন পেয়েছিলেন সেটি লিখুন।
  •  আপনার পছন্দমত ৫টি ডিজিটের একটি নতুন পিন দিন
  • পুনরায় ৫ ডিজিটের পিনটি দিয়ে কনফর্ম করুন।
  • আপনার বিকাশ এর পিন পরিবর্তন হয়ে যাবে।

আপনার বিকাশ পিন সফলভাবে পরির্বতন হয়েছে কিনা চেক করতে  বিকাশ অ্যাপে নতুন পিন দিয়ে লগইন করে দেখুন লগইন হয় কিনা।

বিকাশ পিন রিসেট এর ক্ষেত্রে বিকাশের কিছু নির্দেশনাবলীঃ

  • আপনার নতুন বিকাশ পিন নম্বর অবশ্যই ৫ ডিজিটের হতে হবে।
  • বিকাশ পিন শুধুমাত্র সংখ্যা ব্যবহার করতে হবে। কোন অক্ষর বা স্পেশাল ক্যারেক্টর ব্যবহার করা যাবে না।
  • নতুন পিন সেট করার সময় পূর্বে ব্যবহার করা হয়েছে এমন কোন পিন ব্যবহার করা যাবে না।
  • বিকাশ পিন কোড এর প্রথম সংখ্যা শূন্য(০) হওয়া যাবে না।
  • আট ঘন্টার মধ্যে একবারের বেশি পিন পরিবর্তন করা যাবে না।
  • কোন ধারাবাহিক সংখ্যা পিন হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না। যেমনঃ 12345, 11111, 2222 ইত্যাদি।

 

আশাকরি আপনি এই পোস্টটি  পড়ার পর আপনি নিজেই আপনার বিকাশ পিন লক এর সমাধান করতে  পারবেন।  পোস্টটি ভাল লেগে থাকলে অবশ্যই অন্যদের শেয়ার করে জানাতে ভুলবেন না।

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Scroll to Top