কয়েকটি টিপস্ ফোনে যত খুশি অ্যাপ ইন্সস্টল করুন।

অধিকাংশ স্মার্টফোন ব্যবহারকারী এই সমস্যাটিতে ভুগেন যে, ফোনে কয়েকটা অ্যাপ ইন্সস্টল করলেই ফোনের মেমোরি ফুল হয়ে যায়। অথচ দিন দিন কিন্তু ফোনে অ্যাপ্লিকেশন-এর চাহিদর বেড়েই চলেছে। কেননা, দিন দিন নতুন নতুন অ্যাপ্লিকেশন প্রকাশ হচ্ছে, নতুন নতুন সোশ্যাল মিডিয়া ও নেটওয়ার্ক তৈরী হচ্ছে আবার প্রতিনিয়ত অ্যাপ্লিকেশনগুলিও আপডেট হচ্ছে। এই কারনে আমাদের সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে স্মার্টফোন ব্যবহার করাটাও একটু কঠিন হয়ে পড়ে। যারা হয়ত ২০২০ সালে বা ২০২১ সালের প্রথম দিকে যে ফোনগুলো কিনেছেন তাদের ফোনে হয়ত এই ধরনের সমস্যাগুলো কম হয়, কিন্তু যারা এর আগে ফোন কিনেছিলেন তাদের ফোনে এই ধরনের সমস্যাগুলো বেশিই হয়ে থাকে। আজকে আমি আপনাদের বলব, ফোনে কয়েকটি অ্যাপ ইন্সস্টল করলেই মেমোরি ফুল হয়ে যায় কেন? এবং এই সমস্যা থেকে পরিত্রান পাওয়ার উপায়। এবং আশাকরি আজকের পর থেকে আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী যত খুশি অ্যাপ ইন্সস্টল করতে পারবেন।

কয়েকটি টিপস্ ফোনে যত খুশি অ্যাপ ইন্সস্টল করুন।
কয়েকটি টিপস্ ফোনে যত খুশি অ্যাপ ইন্সস্টল করুন।

ফোনে অ্যাপ ইন্সস্টল করলেই মেমোরি ফুল হয়ে যাওয়ার কারনঃ

আসলে যারা পুরাতন মোবাইল ফোন ব্যবহার করছেন তাদের এই সমস্যাটি হচ্ছে কারন, প্রথমতঃ পুরাতন ফোন গুলোতে  র‌্যাম এবং রম মানে ফোনের ইন্টারনাল মেমোরি তুলনামূলক কম থাকে। আর আমরা যখন আমাদের মোবাইল ফোনে কোন অ্যাপ ইন্সস্টল করি তখন ইন্টারনাল মেমোরিতে সেই অ্যাপ ইন্সস্টল হয় এবং আমাদের ইন্টারনাল মেমোরির জায়গা কমতে থাকে। আবার আমরা প্রতিদিন মোবাইল ফোনে বিভিন্ন অ্যাপ ব্যবহার করি  এর ফলে আমাদের মোবাইলে প্রতিদিন আমাদের মোবাইলে ক্যাশ ফাইল জমতে থাকে। এই ক্যাশ ফাইল গুলোও আমাদের ফোনের জায়গার পরিমান কমিয়ে দেয়। সুতরাং আমাদের ফোনে ইন্টারনাল মেমোরি কম হওয়ায় অল্প কিছু অ্যাপ ইন্সস্টল করার পরই আর কোন অ্যাপ ইন্সস্টল করতে গেলেই আমাদের মেমোরি ফুল দেখায় ফলে আমরা আর কোন অ্যাপ ইন্সস্টল করতে পারি না। কখনও কখনও কোন অ্যাপ্লিকেশন-এর আপডেট ভার্সন আসলে সেটি আপডেটও করতে পারি না।

আরও পড়ুনঃ

ফোনে অ্যাপ ইন্সস্টল করলেই মেমোরি ফুল? ৫টি পদ্ধতি অনুসরণ করুন আর যত খুশি অ্যাপ ইন্সস্টল করুন।

  • এক্সটার্নাল মেমোরি ব্যবহার করুনঃ

ধরুন, আপনি একটা ফোন কিনেছেন যার ইন্টারনাল মেমোরি ৮ জিবি। কিন্তু ফোনে পুরো ৮ জায়গা খালি থাকে না। কারন আপনি নতুন ফোন কিনলেও ফোনে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ্লিকেশন ডিফল্ট হিসেবে ইন্সস্টল করা থাকে আর সেগুলি আপনার ফোনের ইন্টারনাল মেমোরির কিছু জায়গা আগে থেকেই বুকিং করে রাখে। আর আমরা প্রতিদিন যখন ফোনটি ব্যবহার করি, যে কোন কারনেই ব্যবহার করি না কেন আমাদের এই কর্যক্রমের একটি ডাটা আমাদের ইন্টারনাল মেমোরির জায়গা প্রতিদিন ভরাট করতে থাকে। ফলে আপনি যতদিন  এই ফোন ব্যবহার করেন ততদিন  এই ভাবে আপনার ফোনের ইন্টারনাল মেমোরির জায়গা কমতে থাকে। এখন যদি তার পাশাপাশি আপনি অন্যকোন ফাইলও আপনার ফোনের ইন্টারনাল মেমোরিতে রাখেন তাহলে কিন্তু দু-দিনের মধ্যেই আপনার ফোনের ইন্টারনাল মেমোরি ফুল হয়ে যাবে। সুতরাং চেষ্টা করবেন একটি এক্সটার্নাল মেমোরি ব্যবহার করার।

  • ফোনের ক্যাশ(Cached) ডাটা নিয়মিত ডিলেট করে ফেলুনঃ

ক্যাশ(Cached) ডাটা হল প্রতিদিন মোবাইল ব্যবহার করার ফলে মোবাইলে আমাদের কার্যক্রমের যে ডাটা ইন্টারনাল মেমোরিতে জমা হয়ে থাকে সেটি। মোবাইলের ক্যাশ ডাটা নিয়মিত ক্লিন করলে মোবাইলের মেমোরি খালি হওয়ার পাশাপশি মোবাইলের পারফরমেন্সও ভালো থাকে। মোবাইলের ক্যাশ ডাটা ক্লিন করার জন্য আপনি-

  • প্রথমে ফোনের সেটিংস-এ যাবেন
  • এরপর ফোন মেমোরি অপশনে যাবেন,
  • তারপর ইন্টরনাল স্টোরেজ
  • এরপর স্ক্রোল করেই একটু নিচের দিকে দেখতে পাবেন “Cached data” অপশন।
  • Cached data অপশন-এ ক্লিক করেই আপনি আপনার ফোনের ক্যাশ ডাটা ক্লিক করতে পারবেন।
আপনার ফোনের ইন্টারনাল স্টোরে অযথা, অপ্রয়োজনীয় “ক্যাশ ডাটা” নিয়মিত ক্লিক করবেন। এটা নিয়মিত করলে কখনও আপনার ফোন  হ্যাং ও করবে না।
  • ফোনের অ্যাপ্লিকেশন গুলোর রানিং অপশন এক্সটার্নাল মেমোরি করে ফেলুন
আমি আগেই বলেছি প্রথমত আমরা যখন কোন অ্যাপ্লিকেশন ইন্সস্টল করি তখন সেটি প্রথম পর্যায়েই আমাদের ইন্টারনাল মেমোরিতে ইন্সস্টল হয়। এবং বেশিরভাগ ফোনের ইন্টারনাল মেমোরিতে জায়গা কম থাকে। তবে, আপনি চাইলে আপনার ফোনের সেটিংস-এ অ্যাপ্লিকেশন অপশন থেকে অ্যাপ্লিকেশন রানিং অপশনটি সকল অ্যাপ্লিকেশন এর জন্য আপনার ফোনের এসডি কার্ড অর্থাৎ এক্সটার্নাল মেমোরিতে মুভ করে দিন। এতে করে আপনার ইন্টারনাল স্টোরেজ-এ অনেক জায়গা খালি হয়ে যাবে এবং বেশি বেশি অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে পারবেন।
  • অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ্লিকেশগুলো আনইন্সস্টল করে ফেলুন
আমরা প্রতিদিন যে অ্যাপগুলো ব্যবহার করি তার ফলে সেই অ্যাপ্লিকেশন-এর পরিধি বাড়তে থাকে  এবং অ্যাপ্লিকেশনগুলো ফোনের জায়গা বুকিং করা শুরু করে। সুতরাং ফোনে অপ্রয়োজনীয় কোন অ্যাপ্লিকেশন থাকলে সেটা আনইন্সস্টল করে ফেলুন এতে আপনার ফোনের ইন্টারনাল মেমোরি অনেকখানি খলি হয়ে যাবে।
  • লাইট বা বেটা ভার্সনের অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করুন
লাইট ভার্সনের অ্যাপ্লিকেশন মূলত সাইজে অনেক কম হয়ে থাকে। আপনি গুগল প্লে স্টোরে বেশিরভাগ অ্যাপ্লিকেশন গুলোর লাইট ভার্সন পেয়ে যাবেন। লাইট ভার্সনের অ্যাপ্লিকেশন গুলো ইন্সস্টল করতে আপনার ফোনের জায়গার পরিমান কম লাগবে ফলে আপনি একসাথে অনেকগুলো অ্যপ্লিকেশন ব্যবহার করতে পারবেন।
পুরাতন মোবাইল ফোল গুলোতে মূলত এই ধরনের সমস্যাগুলো বেশি হয়ে থাকে। কেননা, সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে যেমন নতুন মোবাইল গুলোতে র‌্যাম বা রম বাড়ানে হচ্ছে, তেমনি ভাবে অ্যাপ্লিকেশন গুলিও আপডেট হচ্ছে ফলে অ্যাপ্লিকেশন গুলোর সাইজও বেড়ে যাচ্ছে। আর এজন্য পুরাতন মোবাইলে কয়েকটি অ্যাপ  ইন্সস্টল করলেই মেমোরি ফুল হয়ে যায়। আশাকরি উপরের নিয়ম গুলো মেনে মোবাইল ফোন ব্যবহার করলে এই ধরনের সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পাবেন।

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Scroll to Top