যেকোন ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করে নিন মাত্র ১ মিনিটে

অনেক সময় বিভিন্ন প্রয়োজনে আমাদের ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার প্রয়োজন হয়। আপনি যদি একজন ইউটিউবার হয়ে থাকেন বা একজন ডিজিটাল মার্কেটার তাহলে তো আপনার প্রায়ই ছবির ব্যকগ্রাউন্ড রিমুভ করার প্রয়োজন পড়ে। আমরা অনেক সময় ইউটিউব ভিডিও থাম্বনেইল বা পোস্টারে নিজের ছবি যুক্ত করে থাকি আর এজন্য আমাদে ছবির ব্যকগ্রাউন্ড রিমুভ করার প্রয়োজন হয়।  ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার সফটওয়্যার গুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় সফ্টওয়্যার হল ফটোশপ।

কিন্তু ফটো এডিটিং এপস ফটোশপে কোন ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার জন্য তো আপনাকে ফটোশপ সম্পর্কে জানতে হবে। অর্থাৎ, ফটোশপে ফটো এডিটিং জানতে হবে। এছাড়া ফটোশপে আপনি যত সময়ে একটি ছবির ব্যকগ্রাউন্ড রিমুভ করতে পারবেন, আর আমি আজকে আপনাদের ছবি ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার পদ্ধতি সম্পর্কে বলব সে পদ্ধতিতে আপনি খুবিই অল্প সময়ে যেকোন ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করতে পারবেন।

আজকের এই পোস্টে আপনি জানতে পারবেন খুবই অল্প সময়ে ছবির ব্যকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করা যায় কিভাবে। আজকে মূলত আমি আপনাদের সাথে কিছু ওয়েবসাইট, টুলস, বা ফটো ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ অ্যাপ নিয়ে আলোচনা করব যার মাধ্যমে আপনি খুবই অল্প সময়ে কোন প্রকার ঝামেলা ছাড়াই যে কোন ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করতে পারবেন। তো চলুন জেনে নিন কিভাবে ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করবেন।

ফটো-ব্যাকগ্রাউন্ড-রিমুভ-করার-উপায়

আরও পড়ুনঃ

যেকোন ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করে নিন মাত্র ১ মিনিটে

এমন অনেক ওয়েবসাইট বা অ্যাপ রয়েছে যেগুলোম মাধ্যমে আপনি খুব দ্রুত যে কোন ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করতে পারবেন। আমি মূলত আপনার সাথে সেই সকল ওয়েবসাইট বা অ্যাপ গুলো শেয়ার করতে যাছি এবং ওয়েবসাইট বা ছবি ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার অ্যাপ গুলোর মাধ্যমে ফটো ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করব।

ছবি ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার ওয়েবসাইট

আপনি যদি গুগলে “Photo background remove online”  লিখে সার্চ করেন তাহলে আপনি অসংখ্য ওয়েবসাইট বা ওয়েব টুলস পেয়ে যাবেন যার মাধ্যমে আপনি কোন প্রকার সফ্টওয়্যার ইন্সস্টল করা ছাড়াই আপনার ব্রাউজার এর দ্বারা এই ওয়েবসাইট গুলোর মাধ্যমে খুব সহজেই ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করতে পারবেন। আর ফটো ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার জন্য আপনাকে এই ওয়েবসাইট গুলোতে কিছুই করতে হবে না। যাস্ট ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন, এর পর আপনি যে ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করতে চান সেটা আপলোড করে রিমুভ ব্যাকগ্রাউন্ড-এ ক্লিক করুন। ব্যাস, আপনার ছবি ব্যকগ্রাউন্ড রিমুভ হয়ে যাবে।

কয়েকটি ইমেজ ব্যকগ্রাউন্ড রিমুভ করার ওয়েবসাইট লিস্টঃ

ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার পদ্ধতি

আমি উপরে ছবি ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার ওয়েবসাইট এর তালিকা দিয়েছি। আপনি এর মধ্য থেকে যেকোন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে খুবই অল্প সময়ের মধ্যে আপনার ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করতে পারবেন। আমি remove.bg ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কিভাবে ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করবেন সেটি দেখাবো।

  1. প্রথমে remove.bg ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন।
  2. এরপর আপলোড অপশনে ক্লিক করে আপনি যে ছবিটির ব্যকগ্রাউন্ড রিমুভ করতে চান সেটি আপলোড করে দিন।
  3. এরপর কয়েক সেকেন্ড এর মদ্যে আপনার ছবির ব্যকগ্রাউন্ড রিমুভ হয়ে যাবে।
  4. এখন ডাউলোড এ ক্লিক করলে। ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করা ফটো ডাউলোড হয়ে যাবে।

ওয়েবসাইট বা ফটো ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার অ্যাপস ব্যবহারের সুবিধা ও অসুবিধা

আপনি খুবই দ্রুত ওয়েবসাইট বা ফটো ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার অ্যাপস ব্যবহার করে যে কোন ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করতে পারবেন। কিন্তু এর কিছু সুবিধা ও অসুবিধা রয়েছে।

ফটো ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার ওয়েবসাইট গুলোর মাধ্যমে কেন ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার সুবিধা গুলো হলঃ আপনি খুব কম সময়ের মধ্যে যে কোন ছবির ব্যকগ্রাউন্ড রিমুভ করতে পারবেন। আপনাকে ফটো এডিটিং এর কাজ জানার প্রয়োজন নেই বা ছবিতে আপনাকে কোন প্রকার কাজ করতে হবে না। শুধুমাত্র আপনি যে ছবিটির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করতে চান সেটি আপলোড করে দিলেই হবে।

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বা ওয়েব টুলস এর মাধ্যমে ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার অসুবিধা গুলো হলঃ ছবির সাইজ ও কোয়ালিটি খারাপ হয়ে যায় এবং অনেক সময় কিছু প্রয়োজনীয় অংশও ব্যাকগ্রাউন্ড এর সাথে মুছে যায়। এবং মাঝে মাঝে কিছু অপ্রয়োজনীয় অংশও থেকে যায়। তবে বেশির ভাগ ছবি মোটামুটি ভাল থাকে।

পরিশেষে,

আমার মতে প্রফেশনালভাবে ছবির ব্যকগ্রাউন্ড রিমুভ করার জন্য ফটোশপ-ই ব্যবহার করা উত্তম। কেননা, ফটোশপে ছবির সাইজ ও কোয়ালিটি ঠিক রেখেই কাজ করা যায়। আপনি ইউটিউবে অনেক টিউটোরিয়াল ভিডিও পাবেন কিভাবে ফটোশপ সফটওয়্যার-এর মাধ্য ছবির ব্যকগ্রাউন্ড রিমুভ করা যায়। তবে, আপনার হাতে যদি সময কম থাকে এবং আপনার কাজের জন্য ছবির কোয়ালিটি তেমন ভাল না হলেও চলে তাহলে আপনি আপনি উপরিউক্ত ওয়েবসাইট গুলো ছবি ব্যকগ্রাউন্ড রিমুভ করার জন্য ব্যবহার করতে পারেন।

আশাকরি আশা করি আজকে এই পোস্টটি আপনার উপকারে এসেছে, ভাল লাগলে শেয়ার করে অন্যদের জানাতে ভুলবেন না। পোস্টটি সম্পর্কে আপনার কোন মন্তব্য থাকলে, নিচের কমেন্ট অপশনে গিয়ে কমেন্ট করে জানিয়ে দিন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top