ভুলে যাওয়া সিমের নাম্বার বের করার উপায়

আপনি কি জানেন ভুলে যাওয়া সিমের নাম্বার কিভাবে দেখতে হয়? যদি জেনে থাকেন তাহলে অনুরোধ করবো আজকের আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ মনোযোগ সহকারে পড়াৱ। আজকের আর্টিকেলটি পড়ার পর আশা করছি এই নিয়ে আপনাদের আর কোন সমস্যা থাকবে না। চলুন তাহলে কথা না বাড়িয়ে জেনে নেওয়া যাক ভুলে যাওয়া যাওয়া সিমের নাম্বার কিভাবে জানতে হয়। বর্তমান যুগ হলো মোবাইল যুগ। আমরা বর্তমানে এমন একটা যুগে বসবাস করছি যেখানে ছোট-বড় সবার হাতেই রয়েছে মোবাইল। আগের কার দিনে হয়তো পুরো গ্রামে অথবা শুধুমাত্র পুরো বাড়িতে একটি মাত্র মোবাইল ব্যবহার করা হতো। কিন্তু এখন এমন এক যুগ যে একটি বাড়িতে একজনেৱ ই থাকে একাধিক মোবাইল। আর এই একাধিক মোবাইল ব্যবহার করার জন্য এখন মানুষ একাধিক সিম ও ব্যবহার করছে। 

সকল সিমের নম্বর দেখার কোড
সকল সিমের নম্বর দেখার কোড

 

কিন্তু সমস্যা হল একজনের পক্ষে এতগুলো নাম্বার মনে রাখা অনেক কঠিন। সবাই হয়তো সব নাম্বার মনে রাখতে পারে না। তাই যখন কোন নাম্বার প্রয়োজন হয় অথবা ব্যালেন্স শেষ হয়ে যায় তখন রিচার্জ করার জন্য নাম্বার দিতে হয় তখন যদি সে নাম্বারটা জানা না থাকে তাহলেই বাধে বিপত্তি। তবে চিন্তার কোন কারণ নেই। প্রত্যেকটি কোম্পানির সিম কার্ডে তাদের নাম্বার জানার জন্য একটি  কোড দিয়ে থাকে। যদিও সব সিমের কোড একরকম নয় তবুও কোড গুলো সহজ হওয়ায় আপনি চাইলেই তেমন রাখতে পারবেন। মূলত হারিয়ে যাওয়া সিমের নাম্বার জানার জন্যই এই কোডগুলো বিশেষ উপকারে আসে। আজকের এই আর্টিকেলটি মূলত মোবাইল নাম্বার জানার উপায় সম্পর্কে। চলুন তাহলে কথা না বারিয়ে নিচে সব সিমের নাম্বার দেখার কোড গুলো বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক

ভুলে যাওয়া সিমের নাম্বার বের করার উপায়

যেহেতু এখনকার যুগে মোবাইলের জোগাড় এখন মানুষ চাইলে একসাথে দশ-বারোটা সিম ব্যবহার করতে পারে তাই আমাদের সবার উচিত ভুলে যাওয়া সিমের নাম্বার কিভাবে বের করতে হয় তা জেনে নেওয়া। আপনি যদি আপনার মোবাইল ফোনের নাম্বারটি ভালোভাবে না জেনে থাকেন তাহলে আপনাকে অনেক সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে। যেমন আপনি কাউকে ফোন নাম্বার দিতে চাইলে দিতে পারবেন না। আবার আপনি যখন রিচার্জ করতে যাবেন তখন নাম্বার ছাড়া রিচার্জ করতে পারবেন না। এছাড়াও অনলাইনে বিভিন্ন কাজ করার জন্য অনেক সময় ফোন নাম্বার দিতে হয় আপনি তখন ফোন নাম্বার না জানলে তা দিতে পারবে না। 

তাই ফোনের নাম্বার মুখস্ত করতে না পারলেও মোবাইল নাম্বার জানার উপায় গুলো আপনাদের জেনে নেওয়া উচিত। যারা শুধুমাত্র একটি সিম কার্ড ব্যাবহার করেন তারা তাদের নাম্বারটি খুব ভালোভাবেই মনে রাখতে পারেন। কিন্তু একাধিক সিম কার্ড ব্যবহারকারীর জন্য এটি খুবই কষ্টকর। তাই যারা বুদ্ধিমান তারা হারিয়ে যাওয়া সিমের নাম্বার জানার উপায় গুলো আগে থেকেই জেনে নেওয়ার চেষ্টা করে যাতে পরবর্তী তাদের কোন সমস্যায় না পড়তে হয়। বলতো আমি আজকে আপনাদের সব সিমের নাম্বার  দেখার কোড গুলো সম্পর্কে জানাতে চলেছি। একেকটি সিমের কোম্পানি আলাদা হওয়ায় এদের কোড গুলো আলাদা হয়। বাংলাদেশের মোট পাঁচটা টেলিকম কোম্পানি রয়েছে। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক এই পাঁচটি টেলিকম কোম্পানির মোবাইল ফোনের নাম্বার জানার কোড গুলো কি কি।

সকল সিমের নাম্বার দেখার কোড

বেশিরভাগ সিম কোম্পানিগুলোর প্রতিদিন নানা রকমের বিজ্ঞাপন এবং অফার এর মাধ্যমে ক্রেতাদের আকর্ষণ করছে যাতে তারা নতুন নতুন সিম ক্রয় করে আর এর কারণেই মানুষ একাধিক সিম কিনতে আকৃষ্ট হচ্ছে। আর তাই মোবাইল নাম্বার ভুলে গেলে সেটা কিভাবে বের করবে সেটি দেখার উপায় জানারও আগ্রহ দিন দিন মানুষের বেড়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশের জনপ্রিয় পাঁচটি মোবাইল টেলিকম অপারেটর হচ্ছে গ্রামীণফোন, রবি, এয়ারটেল, বাংলালিংক, টেলিটক। চলুন তাহলে নিচে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক কিভাবে ভুলে যাওয়া সিমের নাম্বার বের করতে হয়।

গ্রামীণ সিমের নাম্বার দেখার কোড:

গ্রামীন নাম্বার দেখার কোড টি অনেক সহজ। এই সিমের নাম্বার জানার জন্য আপনাকে কোন কঠিন ফোর্ট মনে রাখতে হবে না শুধুমাত্র *2# এই কোডটি মনে রাখলেই হবে। এই কোডটি আপনার ফোনের ডায়াল করলেই দেখবেন আপনার সিমের নাম্বার টি চলে এসেছে। এছাড়া এ কোডটি ডায়াল করে আপনি চাইলে বিভিন্ন মিনিট এসএমএস এবং ইন্টারনেট কিনতে পারবেন।

এয়ারটেল সিমের নাম্বার দেখার কোড – 

 যারা গ্রামীণ এবং এয়ারটেল দুটি কোম্পানির সিম ব্যবহার করে থাকেন তাদের চিন্তার কোন কারণ নেই। কারণ এই দুটি সিমের নাম্বার দেখার কোড। এয়ারটেল নাম্বার দেখার কোড টি হল *2#। জানিয়ে রাখা ভাল যে এয়ারটেল এবং রবি সিমের কোম্পানি কিন্তু এখন এক হয়ে গেছে। তাই আপনি চাইলে এখন এই কোডটি ডায়াল করে রবি নাম্বার দেখে নিতে পারবেন।

রবি সিমেৱ নাম্বার দেখার কোড:

 উপরে আমি বলেছি যে রবি এবং এয়ারটেল সিমের কোম্পানি এখন এক হয়ে গেছে তাই রবি নাম্বার দেখার কোড ও এয়ারটেল নাম্বার দেখার কোড এর মতই। এছাড়া আরো একটি রবি সিমের নাম্বার দেখার নিয়ম রয়েছে। তা হল আপনার সিমটি যদি রবি কোম্পানির হয়ে থাকে তাহলে আপনি *140*2*4# এই কোডটি ডায়াল করার মাধ্যমে ভুলে যাওয়া রবি সিমের নাম্বার জেনে নিতে পারবেন।

বাংলালিংক সিমের নাম্বার দেখার কোড:

অন্যান্য সব সিম কোম্পানির মত বাঙালি সিমের রয়েছে ভুলে যাওয়া নাম্বার জানার একটি কোড। আপনি যদি বাংলালিংক সিমের গ্রাহক হয়ে থাকেন তাহলে আপনি *511# এই কোডটি ডায়াল করার মাধ্যমে বাংলালিংক নাম্বার চেক করতে পারবেন।

টেলিটক নাম্বার দেখার উপায়:

আপনি চাইলে কোড ডায়াল করে টেলিটক সিমের নাম্বার দেখে নিতে পারেন এছাড়াও আপনি চাইলে মেসেজের মাধ্যমে দেখতে পারেন। টেলিটক নাম্বার চেক করতে আপনাকে ডায়াল করতে হবে *511# এই কোডটি। অনেক সময় এ কোডটি ডায়াল করার পর নাম্বার দেখার না ও যেতে পারে তাই তখন আপনি চাইলে এসএমএস এর মাধ্যমে আপনার টেলিটক নাম্বার দেখে নিতে পারেন। আর মেসেজের মাধ্যমে নাম্বার দেখতে হলে আপনাকে প্রথমেই মোবাইলের মেসেজ অপশনে যেয়ে একটি বড় হাতের P লিখতে হবে এবং তা 154 এ নাম্বারে পাঠিয়ে দিতে হবে। ফিরতি এসএমএসে আপনি আপনার ভুলে যাওয়া সিমের নাম্বার দেখতে পাবেন।

পরিষেশে,

তো বন্ধুগণ কেমন লাগলো আজকে আমার এই আর্টিকেলের লেখা ভুলে যাওয়া সিমের নাম্বার জানার উপায় গুলো? আশা করছি আপনারা এই আর্টিকেলটি পড়ে অনেক ইনজয় করেছেন আজকে এবং অনেক কিছু শিখতে পেরেছেন। এখন নিশ্চয়ই আর নাম্বার ভুলে যাওয়ার কোন ভয় নেই আপনাদের। এখন আপনি চাইলে দরকারে অনেকগুলো সিম ব্যবহার করতে পারবেন এবং তাদের নাম্বারও খুব সহজেই জেনে নিতে পারবেন। এখন আর আপনাকে কষ্ট করে নাম্বার মুখস্ত করতে হবে না কিংবা কোথাও লিখে রাখতে হবে না। 

আশা করি আজকের এই আর্টিকেলটি নিয়ে আপনাদের আর কোন প্রশ্ন নেই। আর যদি থেকেও থাকে তাহলে তা এখনই আমাদের কমেন্ট করে জানিয়ে দিন। আপনাদের থেকে বিদায় নেওয়ার সময় হয়ে গেছে। ধৈর্যসহকারে এতক্ষন আমাদের আর্টিকেলটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। আজকের মতো এই আর্টিকেল এখানেই শেষ করছি। আবারও নতুন কোন আর্টিকেল নিয়ে খুব শীঘ্রই আপনাদের সামনে হাজির হবো। সেই পর্যন্ত ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন।

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Scroll to Top