সিসি ক্যামেরার দাম বাংলাদেশে কেমন?

সিসি ক্যামেরার দাম বাংলাদেশে কেমন? যারা নিজেদের ঘরবাড়ি, অফিস কিংবা মার্কেটের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তা করে থাকেন, তারা এই প্রশ্নটি সবসময় জিজ্ঞেস করেন। সিসিটিভি ক্যামেরা এখনকার সময়ে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ও দুর্ঘটনা এড়ানোর জন্য অনেকেই নিজেদের বাড়িতে বা কাজের জায়গায় ব্যবহার করেন। আজকের লেখায় আমি আপনাদের জানাবো সিসিটিভি ক্যামেরা কি, সিসিটিভি ক্যামেরার মূল্য, সিসি ক্যামেরার দাম বাংলাদেশে কেমন, ছোট সিসি ক্যামেরার দাম ইত্যাদি সম্পর্কে যাতে করে আপনারা নিজেদের বাজেট ও পছন্দ অনুয়ায়ী এ সিসিটিভি ক্যামেরা কিনতে পারেন। 

 

ক্যামেরার দাম কত, সিসি ক্যামেরার দাম কত, সিসিটিভি ক্যামেরা, সিসি ক্যামেরার দাম, ছোট ক্যামেরার দাম কত, ক্যামেরা দাম কত, আইপি ক্যামেরা দাম, ছোট সিসি ক্যামেরার দাম কত, ছিছি ক্যামেরার দাম, সিসি ক্যামেরার দাম বাংলাদেশে

সিসিটিভি ক্যামেরা কি? 

সিসিটিভি ক্যামেরার দাম বাংলাদেশে কত ,সিসিটিভি ক্যামেরার মূল্য সেটি যেমন অনেকের প্রশ্ন, একইভাবে এই সিসিটিভি ক্যামেরা কি এটিও অনেকে জানতে চান। যারা সিসিটিভি ক্যামেরা কি তা জানেননা তাদের জন্য সবার শুরুতে জানিয়ে দিচ্ছি সিসিটিভি ক্যামেরা বলতে ঠিক কোন ধরণের ক্যামেরাকে বোঝানো হয়। 

সিসিটিভি ক্যামেরা এর পূর্ণরূপ হলো ক্লোজড সার্কিট টিভি ক্যামেরা। খুব সহজ করে বলা যায়, সিসিটিভি ক্যামেরা এমন এক ধরণের ক্যামেরা যেটির সাহায্যে আপনারা নির্দিষ্ট কোনো জায়গার ভিডিও রেকর্ড করে রাখতে পারবেন। এই ক্যামেরাগুলো সেট করে রাখার পর সেটি নিজে নিজেই ভিডিও ধারণ করে থাকে৷ যেটি পরবর্তীতে আপনারা নিজেদের স্ক্রিনে দেখে নিতে পারবেন। 

একটি সিসিটিভি ক্যামেরার অনেকগুলো অংশ থাকে। সিসিটিভি ক্যামেরার মূল কন্ট্রোলিং অংশকে ডিভিআর বা ডিজিটাল ভিডিও রেকর্ডার বলে। এই ক্যামেরার মাধ্যমে ক্যাপচারড ভিডিও ক্যামেরা হার্ডডিস্কে সেভ থাকে। এই ক্যামেরার সাথে মাউস, রিমোট, কানেক্টর, পাওয়ার কেবল ইত্যাদি প্রোভাইড করা হয়। যাতে করে ক্যামেরা সেট করে নিতে পারেন৷ 

সিসিটিভি ক্যামেরা কত প্রকারের হয়?

সিসিটিভি ক্যামেরা কি আপনারা তো জেনে ফেললেন। এবার আসা যাক সিসিটিভি ক্যামেরা কত প্রকারের হতে পারে সে সম্পর্কে। সবার কাছে সবচেয়ে পরিচিত সিসিটিভি ক্যামেরা হলো বুলেট সিসি ক্যামেরা। এই সিসিটিভি ক্যামেরার মেইন ফিচার হচ্ছে এই ক্যামেরা আপনারা আউটডোরের যেকোনো প্লেসে চট করে সেট করে নিতে পারবেন। কেননা এই ক্যামেরাগুলো রোদ, ঝড় বা বৃষ্টি যেকোনো আবহাওয়াতে নিঁখুতভাবে ভিডিও করতে পারে। 

আউটডোর সিসিটিভি ক্যামেরা হিসেবে অ্যারে ক্যামেরাগুলোও এখন বেশ ফেমাস। এই ক্যামেরাগুলো অনেক ডিসট্যান্স পর্যন্ত ভিডিও ফুটেজ দিতে পারে বলে রাস্তায় বা বড় টাওয়ারে এই ক্যামেরাগুলো ইউজ করা হয়। 

সিসিটিভি ক্যামেরার আরেকটি ভ্যারিয়েন্ট হলো ওয়াইফাই সিসি ক্যামেরা। এটিকে মিনি ও পোর্টেবল সিসি ক্যামও বলা হয়ে থাকে অনেক জায়গাতে। এই ক্যামেরা সেট করে দেয়ার পর আপনি যেকোনো জায়গা থেকে আপনার হাতে থাকা মোবাইলের মাধ্যমে সিসিটিভি ক্যামেরাটিতে রেকর্ড হওয়া ফুটেজ দেখতে পাবেন। 

এতক্ষণে আপনারা নিশ্চয়ই ভাবছেন যে বাড়ি বা অফিসের ভেতরের জন্যে কোন ধরণের সিসি ক্যামেরা বেস্ট হবে। আসলে যারা সিসিটিভি ক্যামেরার দাম বাংলাদেশে কিরকম তা জানতে চান, তাদের মধ্যে বেশিরভাগই বাড়িতে থাকেন বা অফিস করেন। এমন ইনডোর প্লেসের জন্যে বেস্ট সিসি ক্যামেরা হলো ডোম সিসি ক্যামেরা। এই ক্যামেরাগুলোর মেইন ফিচার হলো এগুলো লাইট কম থাকলেও বেশ সুন্দরভাবেই ভিডিও ধারণ করতে ক্যাপাবল৷ 

সিসিটিভি ক্যামেরা কি কাজে লাগে

সিসি ক্যামেরার দাম বাংলাদেশে কি রকম পাওয়া যায় ও সিসিটিভি ক্যামেরার মূল্য তো জানাবোই৷ তার আগে চলুন জেনে আসা যাক সিসিটিভি ক্যামেরা কি কাজে লাগে সে সম্পর্ক।  সিসিটিভি ক্যামেরার মূল কাজ হলো কোনো একটি জায়গার নিরাপত্তা যেন নিশ্চিত হয় তা দেখা। বর্তমানে আমাদের দেশে কর্মজীবী মানুষের সংখ্যা বাড়ছে। বেশিরভাগ মানুষের প্রতিদিন লম্বা একটি সময় বাড়ির বাইরে অবস্থান করেন। 

দেখা যায় অনেকের বাড়ির ছোট সদস্যদেরকে গৃহকর্মীরা দেখাশোনা করে থাকেন অথবা বাড়িতে বয়স্ক সদস্য থাকেন। অনেক সময় এমন হয় বাড়িতে মূল্যবান জিনিসপত্র থাকে ঠিকই কিন্তু সারাদিন বাড়িতে কেউ থাকেনা। এরকম অবস্থায় যেন বাড়িতে কেউ না থাকার পরেও বাড়িতে সম্পূর্ণ নিরাপত্তা নিশ্চিত হয় এ কারণেই বাড়িতে সিসিটিভি ক্যামেরা সেটআপ করা হয়ে থাকে। কারণ সিসিটিভি ক্যামেরা সেটআপ করা হলে বাড়ির ভেতরে কি হচ্ছে না হচ্ছে তা বাড়ির মানুষজন বাড়িতে অবস্থান না করার পরেও দেখতে সক্ষম হন। 

ছোট্ট একটি উদাহরণ দেই। বর্তমানে অনেক কর্মজীবী মায়েরা তাদের সন্তানদেরকে গৃহকর্মীর কাছে রেখে নিজের কর্মস্থলে যান। তারা কাজে যাওয়ার সময় বাড়িতে সিসি ক্যামেরা সেটআপ করে রেখে তারপরে যান। এতে করে গৃহকর্মীরা তাদের সন্তানকে ঠিকমত দেখাশোনা করছে কিনা সেটি তারা নিজেদের অফিসে বসে দেখতে পারেন।। 

শুধু তাই নয়, সিসিটিভি ক্যামেরা থাকার ফলে বাড়িতে চুরি ডাকাতি ইত্যাদি হচ্ছে কিনা সেটিও বোঝা যায় এবং বাড়ির নিরাপত্তা অনেকাংশে নিশ্চিত হয়। শুধুমাত্র বাড়ির ক্ষেত্রে বলছি কেন, বর্তমানে কিন্তু সমস্ত অফিসে সিসিটিভি ক্যামেরা সেটআপ করা হয়। যাতে করে চুরি-ডাকাতি কিংবা যে কোন অনাকাঙ্খিত ঘটনা এড়ানো সম্ভব হয়। পাশাপাশি বর্তমানে অফিসগুলোতে সিসিটিভি ক্যামেরার কারণে অফিসের কর্মকর্তা এবং কর্মচারীরা সঠিকভাবে তাদের দায়িত্ব কর্তব্য পালন করছে কিনা সেটিও নজরদারি করা সম্ভব হয়। 

আমরা বর্তমানে দেখতে পাবো আমাদের শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাতেই সিসিটিভি ক্যামেরা সেট করা হয়। এর কারণ কখনো যদি কোন দূর্ঘটনা ঘটে যায় সেটি যেন পর্যবেক্ষণ করা সম্ভব হয় যাতে করে দুর্ঘটনার কারণ নির্ণয় করা যায় এবং যারা দুর্ঘটনাটির জন্য দায়ী তাদেরকে শনাক্ত করা যায়। বর্তমানে সিসিটিভি ফুটেজ দেখার ফলে বাংলাদেশের আইন শৃংখলা রক্ষাকারীবাহিনী অনেক অপরাধীকে ধরতে সক্ষম হয়েছে এবং তাদের যথাযথ শাস্তি নিশ্চিত করতে পেরেছে। 

এগুলোই ছিলো সিসিটিভি ক্যামেরার ব্যবহার। আশা করছি সবাই বুঝতে পারছেন যে সিসিটিভি ক্যামেরার প্রয়োজনীয়তা কতটুকু বেশি। এসব কারণেই সবাই 

সিসিটিভি ক্যামেরার মূল্য, ছোট সিসি ক্যামেরার দাম কত অর্থাৎ মোটা দাগে সিসি ক্যামেরার দাম বাংলাদেশে কেমন তা সম্পর্কে তথ্য চান। 
আরো পড়ুন

সিসি ক্যামেরার দাম বাংলাদেশে কেমন রেঞ্জের হয়?

এখন আমি আপনাদের জানাবো সিসি ক্যামেরার দাম বাংলাদেশে কত হয়। পাশাপাশি থাকবে বড় ও ছোট সিসি ক্যামেরার দাম কত সেই সম্পর্কেও গাইডলাইন। তাহলে চলুন জানা যাক সিসিটিভি ক্যামেরার মূল্য। সাধারণত বাংলাদেশে এই ক্যামেরাগুলোর দাম ১২০০ থেকে ১৫০০ এর মধ্যে শুরু হয়। কিছু মডেল তুলে ধরছি আপনাদের সুবিধার জন্য। 

 

  • Dahua Imou Ranger 2 WiFi IP CCTV Camera 

বর্তমানের সবচেয়ে জনপ্রিয় সিসিটিভি ক্যামেরার মডেল এটি। এই ক্যামেরা সেটআপ করার জন্য তার লাগেনা। এটিতে ১০৮০ পিক্সেলে দিনে বা রাতে ভিডিও ক্যাপচার হয় এবং এটিতে টু ওয়ে অডিও সিস্টেম দেয়া আছে। এটিকে ইনডোর বা আউটডোরে সেট করা যাবে। ৩৬০ ডিগ্রি অ্যাংগেলে রেকর্ডের সুবিধা দেয়া এই সিসি ক্যামেরার দাম বাংলাদেশে ৩৫০০ টাকার মধ্যে। 

 

  • Panoramic VR 360 Degree Fisheye Wi-Fi Camera

নাম দেখেই বুঝতে পারছেন এটি একটি ওয়াইফাই সিসিটিভি ক্যামেরার নাম। যারা ছোট সিসি ক্যামেরার দাম কত জানতে চান তারা এটি দেখতে পারেন। এই ক্যামেরাতে আপনারা ৩৬০ ডিগ্রি অ্যাংগেলে ১০৮০ পিক্সেলে ভিডিও ফুটেজ পাবেন। এই ক্যামেরাটি আপনারা পেয়ে যাবেন ২০০০ টাকার মধ্যে। 

 

  • Dahua IPC-G22P 02 MP NETWORK IR WIFI Bullet Camera 

ডাহুয়া ব্র‍্যান্ডের এই ক্যামেরাটি কিছুটা হাই রেঞ্জের হলেও এটির সার্ভিস খুবই ভালো। ২ মেগাপিক্সেল রেজুলেশনের ক্যামেরাটি ৫০ মিটারের মতো দূরত্ব অব্দি ভিডিও ফুটেজ দিতে পারে। এই ক্যামেরাটির দাম ৪৫০০ টাকার ভেতরে। 

 

  • FVL Q6 WIFI IP Night Vision CC Camera 

যাদের একেবারেই বাজেট কম, তারা এই ক্যামেরাটি বেছে নিতে পারেন৷ ১ মেগাপিক্সেলের এই ক্যামেরাটিতে নাইট ভিশন সুবিধা দেয়া আছে। ১০ মিটার দূরত্ব কভার করতে পারা এই আইপি সিসি ক্যামেরার দাম ১৫০০ টাকার মধ্যে। 

 

  • Bulb Cam E27 surveillance Camera 

এই ওয়াইফাই সিসিটিভি ক্যামেরাটি দিয়ে আপনারা ৩৬০ ডিগ্রি অ্যাংগেলে ভিডিও করতে পারবেন৷ এটিতে বিল্ট ইন মাইক্রোফোন ও স্পিকারও দেয়া রয়েছে। ২ মেগাপিক্সেল রেজোল্যুশনের এই ক্যামেরার দাম ২৫০০ টাকার ভেতরে। 

 

শেষ কথা 

এটুকুই ছিলো সিসি ক্যামেরার দাম বাংলাদেশে কেমন হয় এ বিষয়ক আলোচনা। আশা করি সবাইকে একটু হলেও সাহায্য করতে পেরেছি। লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করতে ভুলবেননা। 

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top