Best Blog 24 https://www.bestblog24.com/2021/08/facebook-wifi.html

ফেসবুক ওয়াইফাই কি, কেন এবং কিভাবে ?

আপনি কি এমন একটি ব্যবসার মালিক যেখানে আপনি বিনামূল্যে ওয়াইফাই প্রদান করেন? আপনার কি ফেসবুক পেজ আছে? আপনি যদি একটি ছোট ব্যবসা পরিচালনা করেন এবং আপনার গ্রাহকদের বিনামূল্যে ওয়াইফাই অ্যাক্সেস দিতে চান, তাহলে এটি করার সর্বোত্তম উপায় কী? আপনি আপনার রাউটার ব্যবহার করে একটি গেস্ট নেটওয়ার্ক স্থাপন করতে পারেন এবং আশা করি আপনার ডেটা হ্যাকার বা অতি আগ্রহী গ্রাহকদের থেকে নিরাপদ থাকবে। তাই ফেসবুক ওয়াইফাই আপনার জন্য একটা কার্যকরী অপশন। অবাক হচ্ছেন? ফেসবুকের জন্য ওয়াই-ফাইসহ চেক-ইন উদ্যোগটি স্থানীয় বাজারের একটি বৃহত্তর পরিকল্পনার অংশ যা ব্যবসায়ীদের সামাজিক নেটওয়ার্কগুলিতে পেজ তৈরি ও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য উৎসাহিত করে। তাহলে চলুন আজকে জেনে নেই ফেসবুক ওয়াইফাই কী এবং এই সম্পর্কে বিস্তারিত সকল তথ্যঃ 

  

ফেসবুক ওয়াইফাই কি, কেন এবং কিভাবে ?

আরও পড়ুনঃ

ফেসবুক ওয়াইফাই কী ?

ফেসবুক ওয়াইফাই মূলত ফেইসবুকের সাথে অংশীদারি করা বিনামূল্যে ইন্টারনেট। তাই যখনই কেউ আপনার দোকানে যায় তখন সে ইন্টারনেট অ্যাক্সেস করতে পারে এবং সোশ্যাল মিডিয়া ব্রাউজ করতে পারে, এছাড়াও ফেসবুক অ্যাপের মাধ্যমে একজন ব্যক্তি "Find WiFi" খুলতে পারে। এই সুবিধা আছে/সমর্থন করে আপনার আশেপাশে এমন সব জায়গা দেখানো হবে আপনাকে। ফেসবুক ওয়াইফাই আপনার রাউটারকে ওয়াইফাই হটস্পটে পরিণত করে, ওয়াইফাই অনুসন্ধানকারী গ্রাহকদের বিনা মূল্যে ওয়েব ব্যবহার করার আগে আপনার ফেসবুক পেজে চেক -ইন করতে এবং লাইক দিতে অনুরোধ করে। এটি আপনার গ্রাহকদের সাথে অফার এবং ঘোষণাগুলি ভাগ করে। তাই ফেসবুক ওয়াইফাই আপনার ফেসবুক পৃষ্ঠায় সম্পৃক্ততা বাড়ানো এবং আপনার গ্রাহকের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে তোলার দরজা খুলে দেয়। 

ফেসবুক ওয়াই-ফাই এর সুবিধা

  • আপনার ব্যবসাকে বাজারজাতঃ ফেসবুক ওয়াইফাই ডিরেক্টরিতে বিজ্ঞাপন দেয়। যখন গ্রাহকরা আপনার ব্যবসাকে ট্যাগ করে চেক-ইন করেন, তখন তাদের বন্ধু এবং নেটওয়ার্ক এই তথ্য দেখতে পারে, যা আপনাকে বৃহত্তর শ্রোতা এবং আরও সম্ভাব্য গ্রাহকদের কাছে পৌঁছাতে সাহায্য করে।
  • পেজের ব্যস্ততাঃ আপনার অতিথি ওয়াই-ফাই এর সাথে সংযুক্ত হয়ে, গ্রাহকদের তাদের স্মার্টফোনে দীর্ঘ পাসওয়ার্ড প্রবেশ না করে অনলাইনে পেতে সক্ষম করে। আপনার ফেসবুক পেজে লাইক এবং চেক-ইন দিবেন গ্রাহকরা। গ্রাহকদের চেক-ইন করার পরে আপনার ফেসবুক ব্যবসায়িক পৃষ্ঠা দেখানো হয়, যেখানে তারা আপনার ব্যবসাকে বার্তা পাঠাতে পারে, ফটো শেয়ার করতে পারে, অথবা পর্যালোচনা ছেড়ে দিতে পারে।
  • পেজ র‍্যাঙ্ক এর উন্নতিঃ চেক-ইন এবং ব্যস্ততা আপনার পেজের কার্যকলাপ বৃদ্ধি করে। যা ফেসবু সার্চ এবং মোবাইল অ্যাপে কাছাকাছি স্থান ট্যাবে আপনার পেজ র‍্যাঙ্ক এর  অবস্থানকে উন্নত করে।
  • গ্রাহকের অন্তর্দৃষ্টিঃ গ্রাহকদের অন্তর্দৃষ্টি দেখুন। যেমন আপনার ব্যবসায় সংযোগের সংখ্যা এবং চেক-ইন।
  • সহজ সেট-আপঃ আপনার বিদ্যমান ওয়াই-ফাই রাউটার সেট আপ করুন যাতে গ্রাহকরা দ্রুত ইন্টারনেটে প্রবেশ করতে পারেন। বিকল্পগুলি কাস্টমাইজ করুন যেমন একটি নিরাপদ পাসওয়ার্ড সেট করা সেশনের দৈর্ঘ্য, একাধিক রাউটার যোগ করুন এবং একজন গ্রাহক কতদিন অনলাইনে থাকতে পারবেন তার একটি সীমা। কেউ চায় না যে কেউ আপনার ক্যাফে বা দোকানে ভুল করে হোম অফিসের জন্য এবং সারা দিন থাকার সময় এবং টয়লেট, হিটিং এবং লাইটিং ব্যবহার করে মাত্র একটি কফি কিনে। আর মনে রাখবেন ফেসবুক ওয়াইফাই নির্বিঘ্ন অ্যাক্সেস সরবরাহ করে যার কারণে অনেক কম গ্রাহক আপনার ওয়াইফাই পাসওয়ার্ড চাইবে।

ফেসবুক ওয়াই-ফাই-এর সুবিধাঃ

 যদি আপনার কোন স্টোর বা রেস্তোরাঁর মতো শারীরিক অবস্থানের ব্যবসা থাকে, তাহলে আপনি আরো গ্রাহক পেতে ফেসবুক ওয়াই-ফাই সেট আপ করতে পারেন। বেশিরভাগ মানুষ তাদের রাউটারগুলিকে তাদের ফেসবুক পৃষ্ঠায় নির্দেশাবলী অনুসরণ করে একটি অ্যাক্সেস পয়েন্ট দিতে কনফিগার করতে পারে, শুধুমাত্র রাউটারগুলির কিছু বা নতুন মডেল এটি সমর্থন করে। ফেসবুক ওয়াই-ফাই গ্রাহকদের ফেসবুকে আপনার ব্যবসায় চেক-ইন করার পরে আপনার ব্যবসার অতিথি ওয়াই-ফাইয়ের সাথে সংযোগ স্থাপনের অনুমতি দেয়। চেক-ইন গ্রাহকদের নিউজফিডে দেখায়, যা তাদের বন্ধুদের এবং আপনার ফেসবুক পেজেও দৃশ্যমান। এমনকি পূর্বে কোন বন্ধু সে জায়গায় এসে থাকলেও সে পেজে সেটা দেখতে পারবে। আপনার গ্রাহকদের সাথে সংযুক্ত হওয়ার জন্য ফেসবুক ওয়াইফাই ব্যবহার করে তারা আপনার ব্যবসার সাথে যুক্ত হতে পারবে। এমনকি ফেসবুক ওয়াইফাই এর মাধ্যমে আপনার চলমান প্রচারগুলি পরীক্ষা করতে পারবেন এবং আপনার  গ্রাহকরা আপনার ফেসবুক পেজটি পছন্দ করবে। এর সাথে আপনার কাছাকাছি অন্যান্য গ্রাহকদের বা আপনার গ্রাহকদের ফেসবুক বন্ধুদের খুঁজে পেতে আপনার ব্যবসাকে স্পটলাইট করতে সাহায্য করবে। এটি আপনার মার্কেটিং করে আপনার ব্যবসাকে বাড়াতে সাহায্য করবে। আপনি ফেসবুক ওয়াই-ফাইতে সাইন-ইন করা গ্রাহকদের বয়স, লিঙ্গ, এবং আগ্রহের মতো সামগ্রিক, বেনামী জনসংখ্যাতাত্ত্বিক ডেটা থেকেও উপকৃত হবেন এবং তারপর আপনি সেই ফেসবুক বিজ্ঞাপন প্রচার চালিয়ে তাতে টার্গেট অডিয়েন্সদের আকৃষ্ট করার জন্য সেই ডেটা ব্যবহার করতে পারে।

ফেসবুক ওয়াইফাই সেটআপঃ

আপনি একটি ছোট চায়ের দোকান বা ব্যস্ত বুটিক চালান না কেন, আপনি জানেন যে নির্ভরযোগ্য, দ্রুত এবং সহজ ওয়াইফাই থাকা অপরিহার্য। কীভাবে ফেসবুক ওয়াইফাই সেটআপ করবেন সে সম্পর্কে নিচে জানুনঃ

শুরু করার আগে জেনে নিন ফেসবুক ওয়াইফাই সেটআপ করতে কি কি  প্রয়োজনঃ

  • আপনার ফেসবুকে একটি বিজনেস পেজ থাকতে হবে।
  • আপনাকে অবশ্যই আপনার ফেসবুক পেজের এডমিন হতে হবে।
  • আপনার ব্যবসার পৃষ্ঠায় আপনার ব্যবসার তথ্যে তালিকাভুক্ত করে একটি অবস্থান বা ঠিকানা থাকতে হবে।
  • আপনার অবশ্যই একটি রাউটার  এবং আপনার মোবাইল ফোন থাকতে হবে যা ফেসবুক ওয়াই-ফাইয়ের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ।
  • আপনি যে ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের জন্য ফেসবুক ওয়াই-ফাই সেট আপ করার চেষ্টা করছেন আপনাকে অবশ্যই সংযুক্ত থাকতে হবে।

ফেসবুক ওয়াই-ফাই সেট আপ করুনঃ

 ফেসবুক ওয়াই-ফাই সেটআপ করা সহজ। 20 মিনিট বা তার কম সময়ে পারবেন। কোন প্রযুক্তিগত দক্ষতার প্রয়োজন নেই। ফেসবুক ওয়াই-ফাই সেট আপ করতেঃ 

  • ওয়াই-ফাইয়ের সাথে সংযুক্তঃ পেজ সেটিংস থেকে, আপনার ফেসবুক পেজটিকে ফেসবুক ওয়াই-ফাইতে সংযুক্ত করুন এবং আপনার সেটিংস নির্বাচন করুন।
  • সেটিংস কাস্টমাইজ করুন, যেমন স্কিপ চেক-ইন, সেশনের দৈর্ঘ্য ইত্যাদি। যদি আপনার গ্রাহকদের আপনার ওয়াই-ফাই ব্যবহার করার জন্য আপনার ফেসবুক পেজে চেক-ইন করার প্রয়োজন না হয়, তাহলে আপনি স্কিপ চেক-ইন লিঙ্কটি নির্বাচন করতে পারেন।
  • আপনার ডিভাইসকে ওয়াই-ফাইতে সংযুক্ত করে আপনার ফেসবুক ওয়াই-ফাই পরীক্ষা করুন এবং ফেসবুক লগ-ইন স্ক্রিনটি উপস্থিত হওয়ার জন্য অপেক্ষা করুন। এরপরে চেক ইন করে ওয়াই-ফাই সংযোগ করতে বলবে। 
  • আপনি যদি একটি পেজের জন্য ফেসবুক ওয়াই-ফাই সেটিংস পরিবর্তন করতে চান, পেজের জন্য সেটিংস খুলুন। তারপর ফেসবুক ওয়াই-ফাই নির্বাচন করুন।
  • যদি আপনি আপনার রাউটারের সেটিংস পৃষ্ঠায় ফেসবুক ওয়াই-ফাই খুঁজে না পান তাহলে এটি সেই রাউটার মডেলে সমর্থিত নাও হতে পারে। আপনি একটি রাউটার কিনতে পারেন যা ফেসবুক ওয়াই-ফাই সমর্থন করে। অথবা, সাহায্যের জন্য আপনি একজন স্থানীয় টেকনিশিয়ানের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

যেইসব রাউটার ফেসবুক ওয়াইফাইকে সমর্থন করেঃ 

বর্তমান টেকনোলজি এবং মার্কেটিং-এর এই ‍যুগে ফেজবুক ওয়াইফাই ফেজবুক মার্কেটিং-এর অন্যতম অংশ। যদি আপনি নিজের তথ্য নিরাপত্তার কথা ভেবে ভয় পান তাহলে আপনি জেনে অবাক হবেন যে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তার ব্যাপারে  অনেক সচেতন। এমনকি গ্রাহকরা যে সকল দোকানে ওয়াইফাই সুবিধা গ্রহণ করে সেখানেও তাদের তথ্য অর্থাৎ ওয়েব ব্রাউজিং এর সকল তথ্য গোপন থাকবে। শুধুমাত্র তার ইউজার আইডি, নাম এবং বেসিক কিছু তথ্য সেই ব্যবসার মালিক দেখতে পাবে।  এতে গ্রাহক এবং মালিক দুই জনেরই তথ্য নিরাপদ থাকে। সুতরাং আপনার ব্যবসার প্রসারের জন্য আজকেই ফেসবুক ওয়াইফাই সুবিধা চালু করতে পারেন। এতে আপনার ব্যবসার প্রচার হবে সাথে খরচের পরিমাণ কমে যাবে। 

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

Betblog24.com