Best Blog 24 https://www.bestblog24.com/2021/10/how-make-windows-bootable.html

বোটেবল করে উইন্ডোজ করে নিন!

আমাদের অধিকাংশ প্রায় সবার ই কম্পিউটার রয়েছে।আর কম্পিউটার থাকলে আমাদের যে ঝামেলাটির সবচেয়ে বেশি সম্মুখীন হতে হয় সেটি হলো কিছুদিন পর পর উইন্ডোজ আপডেট দেওয়া। কিন্তু ধরুন আপনার হাতে উইন্ডোজ ডিস্ক নেই।এখন উপায়? আপনি কিভাবে আপনার পিসি ইউন্ডোজ করবেন? অথবা ধরুন যে আপনার ডিস্ক পার্টস টি নষ্ট। কোনো ডিস্ক ই সাপোর্ট করে না আপনার কম্পিউটার বা ল্যাপটপ এ।এছাড়াও বর্তমানের ৪র্থ এডিটেশনের ল্যাপটপ গুলাতে ডিস্ক ইন্টার করার কোনো অপশন ই থাকে না। তো আমরা এখন কিভাবে আমাদের PC বা ল্যাপটপ উইন্ডোজ করতে পারি।

বোটেবল করে উইন্ডোজ করে নিন!

আরও পড়ুনঃ

আর চিন্তা নয়!! এই পোস্টে আমি আপনাদের দেখাব যে কিভাবে আপনারা কোনো ডিস্ক এর ঝামেলা ছাড়াই শুধু একটি পেনড্রাইভ ইউজ করেই বোটেবল করার মাধ্যমে উইন্ডোজ করতে পারবেন ঝামেলা ছাড়াই। উইন্ডোজ ৭,৮ এবং টেন এ কিভাবে উইন্ডোজ আপডেট করবেন কিভাবে  পেনড্রাইভ ইউজ করে বোটেবলের মধ্যমে।তো বন্ধুরা চলো শুরু করা যাক।

উইন্ডোজ সেভেন যেভাবে বোটেবল করবেন

বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় উইন্ডোজ হলো ইউন্ডোজ সেভেন।এইটি বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ব্যাবহৃত উইন্ডোজ ভার্সন। ব্যাবহারকারীরা এইটি ব্যাবহার করে খুব সন্তষ্ট বোধ করে এই জন্য এর জনপ্রিয়তা এতোটা ছড়িয়ে রয়েছে।
পেনড্রাইভ বোটেবল করতে হলে প্রথমে আমাদের উইন্ডোজ সেভেন এর ফাইলটি দরকার। এইটি আমরা ডিস্ক থেকে কপি করে নিতে পারব।অন্যথায় আমরা এই ফাইলটি ডাউনলোড (CodePlex) করেও ব্যাবহার করতে পারব।

বোটেবলের কাজ শুরু করি

আমাদের পেনড্রাইভ বোটেবল করার জন্য প্রথমে আমাদের একটি পেনড্রাইভ হাতে রাখতে হবে।এখানে উল্লেখ্য যে পেনড্রাইভ টি অবশ্যই একদম সচল হতে হবে এবং ৪ জিবির উপরে স্টোরেজ এর হতে হবে। এখানে পেনড্রাইভ এর পরিবর্তে মেমোরি কার্ড ইউজ করতে যাবেন না।
এখানে আরেকটি কথা বলে রাখি পেনড্রাইভে কোনো কিছু থাকলে সেটি ব্যাকাপ করে নিবেন।না হয় পেনড্রাইভ ফর্মাট হয়ে যাবে যেগুলো আর ফিরিয়ে আনতে পারবেন না।  আমাদের পেনড্রাইভ বোটেবল করার জন্য একটি ফাইলের প্রয়োজন হবে।এটির নাম হচ্ছে Rufus।  এর মাধ্যমে আমরা ডাউনলোড করা উইন্ডোজ ফাইলটিকে পেনড্রাইভে বোটেবল করতে পারব। Rufus ফাইলটি আগে ডাউনলোড করে নিন।এরপর এর ভিতরে আমরা অনেকগুলো অপশন দেখতে পাব।এগুলো দেখে ভ্যাবাচেকা খাওয়ার দরকার নেই।
এখান থেকে আমরা Drive এর একটি আইকন দেখতে পাব।সেখানে ক্লিক করে Format Options এ গিয়ে উইন্ডোজ ৭ সিলেক্ট করে নিব।

এরপর অটোমেটিকলি সব অপশন গুলো সেট হয়ে যাবে।আমাদের কোনো কিছুই করতে হবে না এখানে আপাতত।

এইবার সব অপশন ঠিকঠাক আছে কিনা সেটি একবার খেয়াল করে  Start এ ক্লিক করুন।

ব্যাস! কাজ শেষ। এইবার কিছু সময় নিবে।তারপর সাকসেস দেখাবে যে আপনার পেনড্রাইভটি বোটেবল হয়ে গিয়েছে।

উইন্ডোজ 8 এবং 10 যেভাবে বোটেবল করব-

আমরা এতক্ষন দেখলাম যে কিভাবে আমরা উইন্ডোজ সেভেন বোটেবল করতে পারি আমাদের পেনড্রাইভে।আমরা এখন দেখব যে কিভাবে উইন্ডোজ ৭ ও ১০ কিভাবে বোটেবল করতে পারি।এখানে বলে রাখি এই ২ উইন্ডোজ এর ক্ষেত্রে Bootable সিস্টেম সব একই।শুধু ফাইল ডাউনলোড করার লিংক গুলা আলাদা।

প্রথমে এই লিংক থেকে Download করে নিন ফাইলটি।এরপর এটি আপনার পেনড্রাইভ এ প্রবেশ করিয়ে অপেন করুন।
তারপর একটি উইন্ডো দেখাবে সেখান থেকে Create installation media for another PC” সিলেক্ট করে Next এ ক্লিক করুন

এরপর আপনার ভাষা সিলেক্ট করতে হবে।এখান থেকে আপনার ভাষা সিলেক্ট করে নিন এবং কোন এডিটেশনের উইন্ডোজ আপডেট করতে চান সেটিও সিলেক্ট করে নিন।
এরপর Next এ ক্লিক করুন।

এরপর আবার আরেকটি উইন্ডো অপেন হবে সেখান থেকে USB flash drive সিলেক্ট করে Next এ ক্লিক করুন।

কাজ শেষ। এইবার আপনার কম্পিউটার কয়েকটি ধাপ সম্পন্ন করে আপডেট  নিয়ে নিবে।

আশা করি বন্ধুরা আপনাদের সবার এই আর্টিকেল টি কাজে লেগেছে।ডিস্ক এর বিরক্তিকর ঝামেলা থেকে আমরা একেবারে মুক্তি পেয়ে যাচ্ছি সাথে সাথে আমরা নতুন কিছু শিখে নিয়েছি।উইন্ডোজের ডিস্ক ছাড়া উইন্ডোজ দিতে গেলে আমাদের কোনো দোকানে যেতে হয়।এর জন্য আমাদের বেশ কিছু টাকা খরচা হয়ে যায়। কিন্তু এখন আপনি নিজেই পেনড্রাইভ বোটেবল করে উইন্ডোজ করতে পারবেন।আজ এই পর্যন্তই বন্ধুরা।


অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

Betblog24.com